Last Update: 2013-09-19 02:02:08 pm

গ্রাহকদের দিতে হবে মুচলেকা!

ডেস্ক রিপোর্ট 2013-06-10 06:49:41 pm

বিশেষ কক্ষে গোপন ক্যামেরা স্থাপন, স্বর্ণালঙ্কার চুরিসহ অসংখ্য কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়া বিউটিশিয়ান কানিজ আলমাসের বিউটি পার্লার পারসোনা আবারও বিতর্কের সৃষ্টি করেছে।

এবার তারা বলছে, পার্লারে ঢুকতে চাইলে তাদের কাছে মুচলেকা দিতে হবে। মুচলেকায় বলতে হবে, পার্লারে প্রবেশের পর ভেতরে অপ্রীতিকর বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো ঘটনা ঘটলে পার্লার কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। পারসোনা কেন নারী সেবা গ্রহীতাদের পূর্ণ নিরাপত্তা দিতে পারছে না তা নিয়ে রীতিমত সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

বনানীর ১১ নম্বর রোডে অবস্থিত পারসোনার শাখায় এ নিয়ে প্রায় প্রতিদিনই কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গ্রাহকদের বচসার ঘটনা ঘটছে বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছে, পার্লারের ভেতর গোপন ক্যামেরায় গ্রাহকের চিত্রধারণ বা চুরির মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলেও যেন কেউ আইনের আশ্রয় গ্রহণ করতে না পারে, সেজন্যই এই মুচলেকার পথ বেছে নিয়েছে পারসোনা কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু গ্রাহকরা সেটা মানতে নারাজ। কারণ সেবা দিলে নারীদের ইজ্জত-আব্রু রক্ষার নিশ্চয়তাটুকু্ও দিতে হবে। নইলে এ ব্যবসা বন্ধ করতে হবে।

বনানী পারসোনা অফিসে সেবা নিতে আসা সেবাগ্রহীতা সুলতানা খানম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “মানুষ সাজতে আসে এই পারসোনায়, এদের জনপ্রিয়তার বলি হচ্ছে অসংখ্য সাধারণ সেবা গ্রহীতা নারী । আমি রোববার আমার বোনকে বিয়ের সাজ সাজাতে নিয়ে গিয়েছিলাম কিন্তু এদের এই মুচলেকা বা ফর্ম পুরণ করতে হল আমাকে, যা দেখে আমি শুধু আশ্চর্য হয়নি রাগান্বিত হয়েছি। এটা কেমন ধরনের প্রক্রিয়া যেখানে ঢুকলে আমার জানমাল, ইজ্জত, মান-সম্মানের ক্ষতি হলে, কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। এটা হতে পারে না।“

আরেক গ্রাহক মিরপুরের বাসিন্দা হালিমা আজিজ বলেন, গত মাসের ১৫ তারিখে আমি স্পা করতে গিয়েছিলাম। স্পা করতে মাঝে মাঝে পুরা শরীর থেকে পোশাক খুলে ফেলতে হতে পারে। আবার ওয়াক্সিং করার সময়ও পুরা শরীর ওয়াক্সিং করতেও প্রায় সব পোশাক খুলে ফেলতে হয়। তারা গোপন ক্যামেরার মাধ্যমে আমাদের এই পোশাকবিহীন শরীর ধারণ করতেই পারে। আমরা যেহেতু মুচলেকা দিচ্ছি এক্ষেত্রে তারা আরও বেশি করেই করতে পারে। পারসোনার সুনাম খ্যাতি বেড়ে গেছে। তাই বলে এই প্রতিষ্ঠান এই রকম অপরাধ করতে পারে না। তাই পারসোনা যদি এই বিষয়টি তুলে না নেয়,তবে আমাদের অবশ্যই বয়কট করতে হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বনানী অফিসের একজন কর্মকর্তা বলেন,পারসোনায় হাজার হাজার গ্রাহক সেবা নিতে আসেন।তাদেরকে একটি ফর্ম পুরণ করেন । এ নিয়ে কোনো ধরণের সমস্যা হয় না। আর ফর্মে যা লেখা থাকে তা নিয়ে বাড়াবাড়ি করার কিছু নেই। একটা জায়গায় গেলে সেখানে কিছু নিয়ম-নীতি থাকবে। এটাই হওয়া স্বাভাবিক।যদিও আমি এই বিষয়ে কিছু বলতে পারিনা। এ সব বিষয় কর্পোরেট অফিসের আওতাধীন।

মুচলেকা নেয়ার বিষয়ে মিরপুর-১১এর কর্পোরেট অফিসের ম্যানেজার তানভিনা আহমেদ প্রথমে অস্বীকার করে পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, মুচলেকা কি ? আমরা কোন মুচলেকা ফুসলেকা নেই না।

কিছুক্ষণ পর তিনি আবার বলেন, আমরা আসলে মুচলেকা নেই না, গ্রাহকরা যে বিষয়টিতে আপত্তি জানাচ্ছে তা হল- যখন কোন বিয়ের কন্যা সাজতে আসে তখন তারা বেশ কিছু স্বর্ণালকার নিয়ে আসে তখন তাদের মালপত্র একটা বাক্সে রাখতে হয়। আবার তার চাবি তাকেই দিতে হয়। তাই তার কাছ থেকে একটা ফর্ম পূরণ করিয়ে নেয়া হয়। যা মুচলেকার মধ্যে পড়ে না।

তবে মুচলেকায় লেখা, পার্লারে প্রবেশের পর ভেতরে অপ্রীতিকর বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো ঘটনা ঘটলে পার্লার কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। এই বিষয়টিতে তিনি সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, হ্যাঁ এই বিষয়টি উল্লেখ্য আছে। যা আমাদের দিতে হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে বনানীর ১১ নম্বর সড়কের পারসোনা বিউটি পার্লারে ‘স্পা' করাতে যান একজন নারী চিকিৎসক। সেখানে একটি কক্ষে তিনি পোশাক পরিবর্তনের পরে কক্ষে সিসিটিভি দেখতে পান। এ নিয়ে তখন তোলপাড় শুরু হয়।

ওই সময় জাতীয় তথ্য কমিশনের সদস্য সাদেকা হালিম বলেছিলেন, বিউটি পারলার পারসোনায় সিসিটিভি ক্যামেরায় ভিডিও ধারণের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া উচিত। কোন স্থানে সিসিটিভি স্থাপন করা যাবে এ বিষয়ে কোনো নীতিমালা নেই। শিগগিরই এ বিষয়ে একটি নীতিমালা করা উচিত। বিউটি পারলার একটি সেনসেটিভ জায়গা।

সেখানে সিসিটিভি রাখা হলে গ্রাহককে তা নোটিশের মাধ্যমে জানাতে হবে যে কোন কারণে ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া উচিত মন্তব্য করে জাতীয় তথ্য কমিশনের কমিশনার সাদেকা বলেন, ঢাকা শহরে তথাকথিত যেসব পার্লার আছে সেসব স্থানে কী হচ্ছে তাও খতিয়ে দেখা দরকার।

এই সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন পাঠকের মন্তব্য (0)    মোট দর্শন(3162)

You can switch to English and Bangla anytime by pressing Ctrl+y in windows and linux (Command+y in mac)



Can't read the image? click here to refresh

X
(4:50 AM) raj: sdf
(4:50 AM) raj: o k
(5:50 AM) raasdsdf: sddsfsdff
(5:50 AM) raasdsdf: df fsdf sdf
(5:50 AM) raasdsdf: df sdfsdf
(5:50 AM) raasdsdf: sdfsdf
(5:50 AM) raasdsdf: sdf sdf
(5:50 AM) raasdsdf: sdfa sdf sdfsf
(5:51 AM) raasdsdf: dsf sdfsdf sdf
(5:51 AM) raasdsdf: sdfas sdf sfsdf
(5:51 AM) raasdsdf: sdf sdfasdfasdf
(5:51 AM) raasdsdf: sd asfasdf
(5:51 AM) raasdsdf: sdf sfasdfsadfsdf
(5:51 AM) raasdsdf: sdf asdfsdf
(3:14 AM) raj: .
(9:37 AM) :
(5:49 AM) irfan: best Bangladeshi news paper
(8:49 AM) :
(11:25 AM) arnob: Nice web portal with huge features anybody here
(6:21 AM) :
(8:25 AM) rabin: hi
(2:12 PM) আমাদের বানারীপাড়া: আমাদের বানারীপাড়া
(1:32 PM) :
(9:25 PM) পরি: আমার বিয়ে হয়েছে এই চার মাস চলছে। আমার স্বামী আমাকে রেপ করে বিয়ে করেছেন।আমার স্বামী খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ তে পড়ছে। আমার বাবা মা দুজনই মৃত।এজন্য তার পরিবার থেকে মেনে নিবে না।ছেলে এখন অন্য মেয়ের সাথে রিলেশনে ব্যস্ত। আমার সাথে যৌতুক চেয়ে তালাকের হুমকি দিয়েছিল। ২ সপ্তাহ আগে জানতে পারলাম সে নাকি তালাক দিয়েছে কোন উকিলের কাছে যেয়ে দিয়েছে।কিন্তু আমার কাছে এখনো কোনো কাগজ বা নোটিস আসেনি। এই অবস্হায় আমি তাকে কিভাবে কঠোর শাস্তি প্রদান করিতে পারি। :-(
(9:30 PM) পরি: উল্লেখ্য তার সাথে ২ সপ্তাহ ধরে যোগাযোগ সম্পূর্ন বন্ধ। শেষ কথার দিন আমাকে হুমকি দিয়েছিল, আমি তাকে ফোন করলে আমার নামে হ্যারাজমেন্ট মামলা করবে। আমার কাছে বিয়ের লিগাল কাবিন আছে
(2:54 AM) :
(1:27 AM) :